Categories
BBlog

কন্টেন্ট রাইটিং কাজকে আনন্দদায়ক করার উপায় কি হতে পারে?

বিরক্তিকর কাজ আমরা কে না এড়িয়ে যাই, যদিও না এর থেকে লাখ টাকা আয়ের ব্যবস্থা থাকে?

রাইটিং কিন্তু একটি বিরক্তিকর কাজ যদি এটি কেবল মাত্র আয়ের জন্য হয়।

এই জন্য অনেকে এই কাজ টি থেকে একটি নির্দিষ্ট সময় পর অন্য ক্যারিয়ার-এ মুভ করেন।

কিন্তু কিছু না কিছু তো থাকা দরকার যার জন্য আমরা অন্তত সাপ্তাহে একটি লেখা ও অনেক টান টান উত্তেজনা নিয়ে লিখতে পারব, নাকি?

এই কাজ-টির জন্য কয়েকটি বাধা আমি তুলে ধরছি,

প্রথম বাধা

আপনার ক্লায়েন্ট স্যাটিস্ফাইড, মানে আপনি যে আর্টকেল দিচ্ছেন সে সেটি ইজিলি নিয়ে নিচ্ছে।

এমন যদি হত, আপনার ক্লায়েন্ট আপনার লেখার ভুল ধরছেন অথবা পরামর্শ দিচ্ছেন যে আরো কি উপায়ে লেখার মান বাড়ানো যায়?

দ্বিতীয় বাধা হচ্ছে-

আপনি শুধু লিখছেন কিন্তু আপনি বড় বড় রাইটার দের লেখা পড়ছেন না যাদের থেকে আপনি মোটিভেটেড হবেন।

৩য় বাধা হচ্ছে-

যেহেতু আপনি লেখার মান বাড়াচ্ছেন না এর মানে আপনার আয় বাড়ছে না। যেহেতু আয় বাড়ছে না সেহেতু আপনি ডি-মোটিভেটেড হয়ে যাচ্ছেন

৪র্থ বাধা হচ্ছে-

আপনার কোন পার্সোনাল ওডিয়েন্স নেই যার সাথে আপনি সুখ দুঃখের আলাপ করতে পারেন।

মানে আপনার নিজের কোন পোর্টফোলিও নাই এবং আপনি রেগুলার সেখানে আর্টকেল লিখছেন না। কারনঃ এর জন্য আপনি কি টাকা পাবেন?

আপনার রাইটিং পোর্টফোলিও যদি আপনার একটি পরিচিতি হয় তবে আপনার ব্লগিং হবে সেটিকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়া।

কিন্তু সমস্যা হচ্ছে আমরা খুব বেশি তাড়াহুড়া প্রবণ এবং আমরা কাজ করার আগে এর ফল নিয়ে বেশি ভাবি।

এবার তো গেল অনেক ঝামেলা নিয়ে কথা তবে সমাধান কি হতে পারে?

ক্লায়েন্ট এর জন্য লেখা এর পাশা পাশি নিজের জন্য লিখুন মানে নিজের পোর্টফোলিও ভারী করার জন্য সময় দিন।

আপনি জানেন একটি লেখা আপনি লোকাল ক্লায়েন্ট এর জন্য লিখেন ১০ ডলার এ তাই হয়তো সেই ১০০ ডলার এর শ্রম আসে না।

তবে যদি আপনি স্বপ্ন দেখেন একদিন আপনি ১০০ ডলার পার থাউজেন্ড ওয়ার্ড এ আর্ন করবেন যা আপনি তিলে তিলে সাজাচ্ছেন, হউক না সেটি আরো ৫ বছর পর?

বাই দ্যা ওয়ে, আপনারা কি মিডিয়াম এ লেখা এখনো জারি রেখেছেন, নাকি দুই চারটি ব্লগ পোষ্ট লিখে আশা ছেড়ে দিয়েছেন?

একটি সহজ সমাধান হচ্ছে, আপনি সেই বিষয় নিয়ে লিখবেন যার ট্রাফিক ভ্যালু আছে অপর দিকে আপনি সেটি নিয়ে সাচ্ছন্দ্য প্রকাশ করেন।

By Imran

Imran is a professional Content writer and the founder of Writing Hacks